Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
বাংলাদেশ, , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯

কাপ্তাইয়ে কর্ণফুলীতে ডুবে নিখোঁজ মামা, ভাগ্নের মৃত্যু

সিএনবি ডেস্ক  ২০১৯-০৬-১৩ ১৭:৫৯:৪৩  

মুনতাকিম,সিএনবিঃ

কাপ্তাই শীলছড়ি এলাকায় কর্ণফুলীতে ডুবে এক পর্যটক নিখোঁজ ও একজন মারা গেছে। তারা সম্পর্কে মামা ভাগ্নে।

আজ বৃহ্স্পতিবার (১৩ জুন) বিকাল ৩টায় এ ঘটনা ঘটে।

নিখোঁজ মামা হলেন হামেদ হাসান আদর (২৯) ও নিহত ভাগ্নে আনোয়ারুল আরেফিন অনু (১৯)।

তাদের মধ্যে আরেফিনের লাশ উদ্ধার করা গেলেও হামেদকে লাশ রাত ৮টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

জানা যায়, নগরীর হালিশহর থেকে একই পরিবারের ১২ জন সদস্য কাপ্তাই বেড়াতে যান। সেখানে সারাদিন বেড়ানোর পর বিকালে কয়েকজন নদীতে সাঁতার কাটতে নামেন। এর মধ্যে দুইজন পানিতে ডুবে যান। তবে একজনকে (আরেফিন) মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে চন্দ্রঘোনা খ্রিস্টিয়ান মিশন হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ডুবে নিখাঁজ হওয়া অপর পর্যটক হামেদ হাসান আদরকে উদ্ধার করার জন্য নৌবাহিনীর ডুবুরি দল এবং কাপ্তাই ফায়ার ব্রিগেড বিকাল থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত নদীতে দফায় দফায় তল্লাশি চালায়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন কাপ্তাই উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মফিজুল হক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশ্রাফ আহমেদ রাসেল, কাপ্তাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ মোহাম্মদ নুর এবং ওসি (তদন্ত) মো. নুরুল আলম।

ওসি সৈয়দ মোহাম্মদ নুর বলেন, ‘নিখোঁজ হামেদ হাসান আদরকে উদ্ধারের জন্য সব ধরণের প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে।’

ওসি (তদন্ত) মো. নুরুল আলম বলেন, ‘উদ্ধার হওয়া আনোয়ারুল আরিফের লাশ পরিবারের অনুরোধে ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। সন্ধ্যা ৭টার সময় লাশ নিয়ে পরিবারের সদস্যরা চট্টগ্রামের হালিশহরের উদ্দেশে রওয়ানা হন।’

 

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশ্রাফ আহমেদ রাসেল জানান, কাপ্তাইয়ে অনেক পর্যটক বেড়াতে আসেন। তাদের মধ্যে কেউ কেউ সাঁতার না জানা সত্বেও কর্ণফুলী নদীতে অথবা কাপ্তাই লেকে গোসল করতে বা সাঁতার কাটতে নামেন। সাঁতার না জানাদের অনেকেই পানিতে ডুবে মর্মান্তিক মৃত্যুবরণ করেন। এখন থেকে সাঁতার না জানা কাউকে নদীতে নেমে গোসল করা বা সাঁতার কাটা থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ জানানক তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ৫ মে ঢাকা থেকে কাপ্তাই ভ্রমণে আসা বিদেশী পর্যটক আরাফাত রহমান নিশু (২৫) কাপ্তাই উপজেলার প্রশান্তি পার্ক নামক স্থানে সাঁতার কাটতে গিয়ে ডুবে মারা যান।

গড়ে প্রতি মাসে এক বা একাধিক পর্যটক কর্ণফুলীতে ডুবে মৃত্যুবরণ করছেন। এই পরিস্থিতি থেকে পর্যটকদের রক্ষা করতে প্রশাসনকে তৎপর হওয়ার জন্য অনেকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, হামেদ হাসান আদর ও আনোয়ারুল আরেফিন অনু সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর পিএস মুহাম্মদ ওসমান গনির যথাক্রমে ছোট ভাই ও ভাগিনা।

মন্তব্য করুন

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন


ফেইসবুকে আমরা

বিজ্ঞাপন